• ঢাকা
  • শুক্রবার:২০২৪:মে || ০৩:০৬:১৭
প্রকাশের সময় :
ফেব্রুয়ারী ৩, ২০২৩,
৪:৪৫ অপরাহ্ন

সর্বশেষ আপডেট :
ফেব্রুয়ারী ৩, ২০২৩,
৪:৪৫ অপরাহ্ন

৩৮৭ বার দেখা হয়েছে ।

সোনারগাঁয়ে গৃহবধূকে হাত-পা বেঁধে হাতুড়িপেটা করে হত্যা, স্বামী পলাতক

সোনারগাঁয়ে গৃহবধূকে হাত-পা বেঁধে হাতুড়িপেটা করে হত্যা, স্বামী পলাতক

সোনারগাঁয়ে পারিবারিক কলহের জেরে এক গৃহবধূকে হাত-পা বেঁধে হাতুড়িপেটা করে হত্যা করেছে স্বামী। বৃহস্পতিবার (২ ফেব্রুয়ারি) রাতে উপজেলার পিরোজপুর ইউনিয়নের চেঙ্গাকান্দি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। তথ্যটি লাইভ নারায়ণগঞ্জকে নিশ্চিত করেছেন সোনারগাঁ থানার ইন্সপেক্টর (তদন্ত) মো. আহসানুল্লাহ।
নিহত গৃহবধূর নাম আঁখি আক্তার (৩২)। সে সোনারগাঁয়ের পিরোজপুর ইউনিয়নের পিরোজপুর গ্রামের ইব্রাহিম প্রধানের মেয়ে। অভিযুক্ত স্বামীর নাম সাইদুল ইসলাম (৩৬)। সে সোনারগাঁয়ের পিরোজপুর ইউনিয়নের চেঙ্গাকান্দি গ্রামের নুরুল ইসলাম সুধার ছেলে।
পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, ১৫ বছর আগে পারিবারিকভাবে সাইদুল ইসলামের সঙ্গে আঁখি আক্তারের বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকেই তাদের মধ্যে কলহ চলছিল। দাম্পত্য জীবনে তাদের অর্ণব (১২) ও সিয়াম (১০) নামের দুই সন্তান রয়েছে। নানা অজুহাতে সাইদুল ইসলাম প্রায়ই আঁখিকে মারধর করতো। বৃহস্পতিবার রাতেও তাদের মধ্যে বাগবিতণ্ডা হয়। একপর্যায়ে আঁখিকে স্বামী সাইদুল ইসলাম হাত-পা বেঁধে হাতুড়ি দিয়ে উপর্যপুরি মাথায় ও শরীরের বিভিন্ন স্থানে পেটাতে থাকে। হাতুড়ির আঘাতে আঁখি জ্ঞান হারিয়ে ফেলে। পরে তার দুই সন্তানের চিৎকারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে আসে। তৎক্ষণাৎ তার স্বামী সাইদুল ইসলাম পালিয়ে যান। পরে তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।
সোনারগাঁ থানার ওসি মাহাবুব আলম সুমন বলেন, গৃহবধূ হত্যাকাণ্ডের খবর শুনে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়। নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নারায়ণগঞ্জ মর্গে পাঠানো হয়েছে। অভিযুক্ত স্বামী এখনো পলাতক রয়েছেন। এ ঘটনায় মামলা প্রক্রিয়াধীন। অভিযুক্ত স্বামীকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।