• ঢাকা
  • মঙ্গলবার:২০২৪:ফেব্রুয়ারী || ২১:৫৩:৩১
প্রকাশের সময় :
ফেব্রুয়ারী ৩, ২০২৩,
৭:১০ পূর্বাহ্ন

সর্বশেষ আপডেট :
ফেব্রুয়ারী ৩, ২০২৩,
৭:১০ পূর্বাহ্ন

৩৩১ বার দেখা হয়েছে ।

পূর্বাচলে পাতালরেল নির্মাণকাজের উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী

পূর্বাচলে পাতালরেল নির্মাণকাজের উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী

দেশের প্রথম পাতাল মেট্রোলাইন নির্মাণকাজের উদ্বোধনী ফলক উন্মোচন করলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বৃহস্পতিবার বেলা ১১টা ৫ মিনিটের দিকে পূর্বাচল নতুন শহর প্রকল্প, নারায়ণগঞ্জ রূপগঞ্জের রাজউক কমার্শিয়াল প্লট মাঠে পাতাল মেট্রোলাইন নির্মাণকাজের উদ্বোধন ঘোষণা ও ফলক উন্মোচন করেন তিনি।

উত্তরা দিয়াবাড়ি থেকে আগারগাঁও পর্যন্ত মেট্রোরেল উদ্বোধনের এক মাসের মাথায় দেশের প্রথম পাতাল মেট্রোরেলের নির্মাণকাজেরও উদ্বোধন করলেন তিনি।
সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের, ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র আতিকুল ইসলাম, বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী, বাংলাদেশে জাপানের রাষ্ট্রদূত ইওয়ামা কিমিনোরি, সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের সচিব এ বি এম আমিন উল্লাহ নূরী এবং ঢাকা ম্যাস ট্রানজিট কোম্পানি লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (ডিএমটিসিএল) এম এ এন সিদ্দিক, নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের মেয়র ডা. সেলিনা হায়াত আইভী, সংসদ সদস্য শামীম ওসমান, নজরুল ইসলাম বাবু প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে ছিলেন।
এ নির্মাণকাজ শেষ হলে ২৫টি পাতালরেল চলবে। একেকটি ট্রেনে আটটি করে কোচ থাকবে। দিনের মূল সময়ে আড়াই থেকে সাড়ে তিন মিনিট পরপর ট্রেন চলবে।

বিমানবন্দর থেকে কমলাপুর যেতে সময় লাগবে ২৪ মিনিট। দৈনিক আট লাখ যাত্রী পরিবহন করা যাবে এ পাতালরেলে। অত্যাধুনিক বোরিং মেশিন দিয়ে নিঃশব্দে কাজ করা হবে।

পূর্বাচল এক্সপ্রেসওয়ে বা ৩০০ ফুট সড়কের কোনো ক্ষতি হবে না। মাঝে সড়ক বিভাজকে ৪ মিটার জায়গা রাখা হয়েছে। ২০২৬ সালের মধ্যে নির্মাণকাজ শেষ করার প্রচেষ্টা থাকবে বলে পাতালরেল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে।

এই পাতালরেল হচ্ছে ম্যাস র‌্যাপিড ট্রানজিট (এমআরটি-১) প্রকল্পের আওতায়। এটি বাস্তবায়ন করবে ঢাকা ম্যাস ট্রানজিট কোম্পানি লিমিটেড (ডিএমটিসিএল)। এরই মধ্যে নারায়ণগঞ্জের পিতলগঞ্জে মেট্রোরেলের ডিপো নির্মাণে ঠিকাদার প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে চুক্তি সই করেছে ডিএমটিসিএল।

প্রকল্প সূত্র জানায়, সরকার ২০২৬ সালের মধ্যে আনুমানিক ৫২ হাজার ৫৬১ কোটি ৪৩ লাখ টাকা ব্যয়ে বিমানবন্দর থেকে কমলাপুর এবং পূর্বাচল থেকে নতুন বাজার পর্যন্ত মাটির নিচ দিয়ে এবং এলিভেটেড উভয় সুবিধাসংবলিত ৩১ দশমিক ২৪২ কিলোমিটার দীর্ঘ এমআরটি লাইন-১ নির্মাণ করবে। ২০৩০ সাল নাগাদ রাজধানী ঢাকায় মোট ছয়টি মেট্রোরেল রুট উদ্বোধন করা হবে এবং ডিএমটিসিএল এই মেগা প্রকল্পগুলো বাস্তবায়ন করবে।