• ঢাকা
  • শুক্রবার:২০২৪:Jun || ২১:২৫:১৮
প্রকাশের সময় :
নভেম্বর ১৬, ২০২২,
৫:৪২ অপরাহ্ন

সর্বশেষ আপডেট :
নভেম্বর ১৬, ২০২২,
৫:৪২ অপরাহ্ন

৪২৬ বার দেখা হয়েছে ।

না.গঞ্জ জেলা ছাত্রদলের কমিটি বিলুপ্ত

না.গঞ্জ জেলা ছাত্রদলের কমিটি বিলুপ্ত

নারায়ণগঞ্জ জেলা ও মহানগর ছাত্রদলের কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করেছে কেন্দ্রীয় ছাত্রদল। মঙ্গলবার (১৫ নভেম্বর) রাতে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এই তথ্য জানান কেন্দ্রীয় ছাত্রদলের দপ্তর সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম।

বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, কেন্দ্রীয় ছাত্রদলের সভাপতি কাজী রওনকুল ইসলাম শ্রাবন ও সাধারণ সম্পাদক সাইফ মাহমুদ জুয়েল এই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

জানা গেছে, নারায়ণগঞ্জ জেলা ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি মশিউর রহমান রনি কমিটি থাকা অবস্থায় জেলা যুবদলের সদস্য সচিব বনে যান । জেলা ছাত্রদলের সাবেক সিনিয়র সহ—সভাপতি মোহাম্মদ উল্লাহও আড়াইহাজার পৌরসভা বিএনপি’র সভাপতি হয়ে গেছেন। এরপর জেলা ছাত্রদলের ১ম সহ—সভাপতি আরিফুর রহমান মানিকে ভারপ্রাপ্ত সভাপতি করে জেলা ছাত্রদলের পূর্ণাঙ্গ কমিটি দীর্ঘ চার বছর পর ঘোষণা করা হয়। সেই কমিটির অবস্থা বর্তমানে নাজুক। কারন জেলা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক খায়রুল ইসলাম সজিব ছাত্রদলের চেয়ে যুবদলের ব্যানারে মিটিং মিছিল করছে।

এদিকে একই অবস্থা নারায়ণগঞ্জ মহানগর ছাত্রদলের কমিটিতেও নারায়ণগঞ্জ মহানগর ছাত্রদলের সভাপতি শাহেদ আহমেদ মহানগর যুবদলের যুগ্ম আহ্বায়ক হয়েছেন। আর সাধারণ সম্পাদক মমিনুর রহমান বাবু আর ছাত্রদলের রাজনীতি করবে বলে জানিয়েছেন। তিনি মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দলের রাজনীতিতে সক্রিয় হচ্ছেন। তারা দুজনেই বাধ্য হয়ে মহানগর ছাত্রদলের মিটিং মিছিল করতে হয়েছিল। কারণ তারা এখনও সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করছেন।

জানা গেছে, ২০১৮ সালের ৫ জুন মশিউর রহমান রনিকে সভাপতি ও খাইরুল ইসলাম সজীবকে সাধারণ সম্পাদক করে ১২ সদস্য বিশিষ্ট জেলা ছাত্রদলের অংশিক কমিটি ঘোষণা করেন তৎকালীন কেন্দ্রীয় ছাত্রদলের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মামুন অর রশিদ মামুন ও সাধারন সম্পাদক আকরামুল হাসান। পরবর্তী দীর্ঘ প্রায় চার বছর পর গত ৩০ মার্চ আরিফুর রহমান মানিককে ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ও খাইরুল ইসলাম সজীবকে সাধারণ সম্পাদক করে নারায়ণগঞ্জ জেলা ছাত্রদলের ৫৯২ সদস্য বিশিষ্ট এই পূর্ণাঙ্গ কমিটি অনুমোদন দেন তাৎকালীন ছাত্রদল কেন্দ্রীয় সভাপতি ফজলুর রহমান খোকন ও সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন শ্যামল।

আরও জানা গেছে, ২০১৮সালের ৫ জুন শাহেদ আহমেদকে সভাপতি ও মমিনুর রহমান বাবুকে সাধারণ সম্পাদক করে মহানগর ছাত্রদলের আংশিক কমিটি অনুমোদন দেন তাৎকালীন ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মামুন অর রশিদ মামুন ও সাধারন সম্পাদক আকরামুল হাসান। পরবর্তীতে একই বছরের ২৭ সেপ্টেম্বর ২২৫ সদস্য বিশিষ্ট এই কমিটির অনুমোদন করেছেন ছাত্রদল কেন্দ্রীয় সভাপতি রাজিব আহসান ও সাধারণ সম্পাদক আকরামুল হাসান।