• ঢাকা
  • শুক্রবার:২০২৪:Jun || ২২:৩৪:০০
প্রকাশের সময় :
জুন ১৭, ২০২৩,
৪:৫০ অপরাহ্ন

সর্বশেষ আপডেট :
জুন ১৭, ২০২৩,
৪:৫০ অপরাহ্ন

৭৯০ বার দেখা হয়েছে ।

নারায়ণগঞ্জে বিএনপির সম্মেলন চলছে, যুক্ত হয়েছেন তারেক জিয়া

নারায়ণগঞ্জে বিএনপির সম্মেলন চলছে, যুক্ত হয়েছেন তারেক জিয়া

১৪ বছর পর শনিবার (১৭ জুন) সকাল ১০টা থেকে নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির সম্মেলন শুরু হয়েছে। চলবে বিকাল ৪টা পর্যন্ত। কমিটির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পদে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছে। এখন নানা হিসাব-নিকাশ চলছে কমিটির অন্যান্য পদ নিয়ে। সম্মেলনকে ঘিরে নেতাকর্মীদের মধ্যে উচ্ছ্বাস-উদ্দীপনা বিরাজ করছে। সম্মেলনে প্রধান অতিথি হিসেবে লন্ডন থেকে ভিডিও কনফারেন্সে যুক্ত হয়েছেন বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান। প্রধান বক্তা হিসেবে ঢাকা বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট আব্দুস সালাম আজাদ, বিশেষ বক্তা হিসেবে ঢাকা বিভাগীয় সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক বেনজীর আহমেদ টিটুর উপস্থিত হন। সভাপতিত্ব করছেন নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির আহ্বায়ক মুহাম্মদ গিয়াসউদ্দিন উদ্দীন।
দলীয় সূত্র জানা যায়, ২০০৯ সালের ২৫ নভেম্বর শহরের আলী আহমেদ চুনকা পৌর মিলনায়তনে জেলা বিএনপির সর্বশেষ সম্মেলনে তৈমূর আলম খন্দকারকে সভাপতি ও কাজী মনিরুজ্জামানকে নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির সাধরণ সম্পাদক করা হয়। কিন্তু ৭ বছরেও তারা পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠন করতে না পারায় ২০১৭ সালের ১৩ ফেব্রুয়ারি জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক কাজী মনিরুজ্জামানকে সভাপতি ও জেলা যুবদলের সাবেক সভাপতি অধ্যাপক মামুন মাহমুদকে সাধারণ সম্পাদক করে জেলা কমিটি ঘোষণা করা হয়। সাড়ে ৩ বছর পর সেই কমিটি ভেঙে দিয়ে ২০২০ সালের ৩১ ডিসেম্বর কেন্দ্র থেকে পুনরায় তৈমূরকে আহ্বায়ক ও মামুন মাহমুদকে সদস্য সচিব করে জেলা বিএনপির ৪১ সদস্যবিশিষ্ট আহ্বায়ক কমিটি গঠন করা হয়। তবে ২০২২ সালের জানুয়ারি মাসে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে দলীয় সিদ্ধান্তের বাইরে গিয়ে মেয়র নির্বাচন করায় তৈমূর আলম খন্দকারকে আহ্বায়কের পদ থেকে সরিয়ে দিয়ে মনিরুল ইসলাম রবিকে ভারপ্রাপ্ত আহ্বায়ক করা হয় । ওই বছরের ১৫ নভেম্বর মনিরুল ইসলাম রবি ও মামুন মাহমুদের আহ্বায়ক কমিটি ভেঙে দিয়ে কেন্দ্র থেকে নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য মুহাম্মদ গিয়াস উদ্দিনকে আহ্বায়ক ও জেলা যুবদলের আহ্বায়ক গোলাম ফারুক খোকনকে সদস্য সচিব করে নয় সদস্যবিশিষ্ট জেলা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটি ঘোষণা করা হয়।
সম্মেলনের আগেই বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় সভাপতি নির্বাচিত হয়েছেন নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য ও জেলা বিএনপির বর্তমান আহ্বায়ক মুহাম্মদ গিয়াসউদ্দিন। আর সাধারণ সম্পাদক পদে নির্বাচনের জন্য মনোনয়নপত্র কিনেছেন জেলা বিএনপির বর্তমান সদস্য সচিব গোলাম ফারুক খোকন ও যুগ্ম আহ্বায়ক মাসুকুল ইসলাম রাজীব। কিন্তু ইতোমধ্যে মাসুকুল ইসলাম রাজীব তার প্রার্থীতা প্রত্যাহার করে নিয়েছেন।
সম্মেলনকে ঘিরে নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির কাউন্সিলে ১০টি ইউনিট কমিটির ১০১ জন করে কাউন্সিলর রয়েছে। সে হিসাবে সারা জেলাজুড়ে ১ হাজার ১০ জন কাউন্সিলর তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে পারবেন। এছাড়া বিভিন্ন ইউনিট ও অঙ্গ সহযোগী সংগঠনের ১ হাজার ৫০০ ডেলিগেট উপস্থিত হয়েছেন। তবে নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির কমিটি নির্বাহী কমিটির সদস্য মুস্তাফিজুর রহমান ভুঁইয়া দিপুর বলয়ে আসায় জেলাজুড়ে দলের নেতাকর্মীদের মধ্যে উৎসাহ উদ্দীপনা দেখা দিয়েছে। এবার সেই বিতকির্ত নেতারা জেলার কমিটি থেকে বাদ পড়েছেন। বিশেষ করে এডভোকেট তৈমূর আলম খন্দকার, কাজী মনিরুজ্জামান, নজরুল ইসলাম আজাদ, অধ্যাপক মামুন মাহমুদ, মাসুকুল ইসলাম রাজীব।