• ঢাকা
  • শুক্রবার:২০২৪:Jun || ২১:৫৮:১৯
প্রকাশের সময় :
এপ্রিল ১৪, ২০২২,
১২:৫৭ অপরাহ্ন

সর্বশেষ আপডেট :
এপ্রিল ১৪, ২০২২,
১২:৫৭ অপরাহ্ন

৪৪৫ বার দেখা হয়েছে ।

ড. আতিউর রহমানকে ‘রবীন্দ্র পুরষ্কার ২০২১’ প্রদান

ড. আতিউর রহমানকে ‘রবীন্দ্র পুরষ্কার ২০২১’ প্রদান

আজ (১০ এপ্রিল, ২০২২) বাংলা একাডেমি কর্তৃক ‘রবীন্দ্র পুরষ্কার ২০২১’ গ্রহণ করেন ড. আতিউর রহমান। এ উপলক্ষে বাংলা একাডেমি মিলনায়তনে এক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য প্রদান করেন বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক মুহম্মদ নূরুল হুদা। অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন বাংলা একাডেমির সচিব এ.এইচ.এম লোকমান। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন বাংলা একাডেমির পরিচালক নুরুন্নাহার খানম।

অনুষ্ঠান শেষে ড. আতিউর রহমান বলেন, ‘রবীন্দ্রনাথ আমাদের জাতিসত্তা ও অস্তিত্বের প্রতীক। বাঙালির বিশ্বব্যাপী যে স্বাতন্ত্র্য ও আভিজাত্য রয়েছে এর বড় অবদান কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের। বাঙালির নান্দনিক চর্চাকেও যিনি এগিয়ে নিয়ে গেছেন। রবীন্দ্রনাথের কাছ থেকে অনুপ্রাণিত হয়েই জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বাঙালি জাতীয়তাবাদ প্রতিষ্ঠা করেন। রবীন্দ্রনাথ শুধু লেখক নন, বড় মাপের একজন অর্থনীতিবিদও। কেননা কৃষি ও কৃষকের উন্নতির কথা অনবরত বলেছেন। সমাজের বঞ্চিতজনদের এগিয়ে নেয়া ও আত্মশক্তির সন্ধান করেছেন। তার আর্থসামাজিক ভাবনাকে তাই আরও তুলে ধরতে হবে।

 

সভাপতির বক্তব্যে বাংলা একাডেমির সভাপতি সেলিনা হোসেন বলেন,  রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর বাঙালি জাতীয়তা ও বাংলা ভাষাকে বিশ্বজুড়ে ছড়িয়ে দিয়েছেন। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান নানাভাবে স্মরণ করেছেন রবীন্দ্রনাথকে। রবীন্দ্রগবেষক ড. আতিউর রহমানের লেখালেখি তাঁকেও রবীন্দ্রনাথ-কেন্দ্রীক সাহিত্য রচনায় উৎসাহিত করেছে।

উল্লেখ্য, ড. আতিউর রহমানের রবীন্দ্র বিষয়ক বহুমাত্রিক লেখা দেশে বিদেশে বিপুলভাবে প্রশংসিত ও পুরস্কৃত হয়েছে।