• ঢাকা
  • শনিবার:২০২৪:মার্চ || ২০:৩০:৪০
প্রকাশের সময় :
এপ্রিল ১৪, ২০২২,
৮:০৭ পূর্বাহ্ন

সর্বশেষ আপডেট :
এপ্রিল ১৪, ২০২২,
৮:০৭ পূর্বাহ্ন

৩৩ বার দেখা হয়েছে ।

জরিমানার ফাঁদে জনসন

জরিমানার ফাঁদে জনসন

লকডাউনের মধ্যে পার্টি করায় যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন ও অর্থমন্ত্রী ঋষী সুনাককে জরিমানা করা হচ্ছে।

 

এ ছাড়া প্রধানমন্ত্রীর স্ত্রী ক্যারি জনসনকেও একটি নির্দিষ্ট শাস্তির নোটিশ দেয়া হবে।

এ বিষয়ে লন্ডন মেট্রোপলিটন পুলিশের পক্ষ থেকে নোটিশ দেয়া হয়েছে। দুই নেতাকে জরিমানার অঙ্ক জানিয়ে আরেকটি নোটিশ দেয়া হবে।

 

করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯০ মোকাবিলায় কঠোর বিধিনিষেধের মধ্যে যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় ও বাসভবন ১০ নম্বর ডাউনিং স্ট্রিটে কয়েক দফায় পার্টির আয়োজন করা হয়। যদিও সে সময় জনসমাবেশ আয়োজনে বিধিনিষেধ ছিল।

খবরে বলা হয়, লন্ডন মেট্রোপলিটন পুলিশ করোনাবিধি ভেঙে ডাউনিং স্ট্রিট ও হোয়াইট হলে ১২টি জনসমাগমের অভিযোগ তদন্ত করছে। এসব ঘটনায় এরইমধ্যে অর্ধশতাধিক মানুষকে জরিমানা করা হয়েছে। যাদের জরিমানা করা হচ্ছে, তাদের সবার নাম প্রকাশ না করবে না পুলিশ। তবে জরিমানাপ্রাপ্ত ব্যক্তিদের তালিকায় প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন ও অর্থমন্ত্রী ঋষী সুনাক থাকলে তাদের নাম প্রকাশের প্রতিশ্রুতি দিয়েছে সরকার।

 

১০ নম্বর ডাউনিং স্ট্রিটের একজন মুখপাত্র আজ বলেছেন, প্রধানমন্ত্রীকে জরিমানার বিষয়টি কোন ঘটনাকে কেন্দ্র করে তাঁদের সে বিষয়ে এখনো জানানো হয়নি।

তবে এই খবর প্রকাশের পর বিরোধী দল লেবার পার্টির নেতা স্যার কিয়ের স্টারমার বরিস জনসন ও ঋষী সুনাকের পদত্যাগ দাবি করেছেন। বিবিসি।

জাগরণ/আন্তর্জাতিক/কেএপি