• ঢাকা
  • শুক্রবার:২০২৪:মে || ০৪:০৩:১৭
প্রকাশের সময় :
মার্চ ৯, ২০২৩,
৩:৫৩ অপরাহ্ন

সর্বশেষ আপডেট :
মার্চ ৯, ২০২৩,
৩:৫৩ অপরাহ্ন

৩৫৯ বার দেখা হয়েছে ।

গার্মেন্টসের ভেতরে পড়েছিল যুবকের বিকৃত মরদেহ

গার্মেন্টসের ভেতরে পড়েছিল যুবকের বিকৃত মরদেহ

নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার ফতুল্লায় এক পোশাক কারখানার ভেতর থেকে এক যুবকের পচা বিকৃত মরদেহ উদ্ধার করেছে ফতুল্লা মডেল থানা পুলিশ।
মঙ্গলবার (৭ মার্চ) শবে বরাতের রাত ৩টায় নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশ লাইন সংলগ্ন লোহার মার্কেটের পাশে অবস্থিত ওই গার্মেন্টসের ভেতরে পরিত্যক্ত জায়গা থেকে মরদেহটি উদ্ধার করা হয়।
মৃতের নাম শয়ন চন্দ্র মন্ডল। শহরের শেরে বাংলা রোড এলাকার জতীন্দ্র চন্দ্র মন্ডল ও লক্ষী রানী মন্ডলের ছেলে তিনি। শয়ন মাদকাসক্ত ছিলেন বলে জানা যায়। ফতুল্লা মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মহসিন এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।
তিনি বলেন, ওই কারখানার ৪জন মালিক রয়েছেন। কিন্তু কারখানাটিতে পর্যাপ্ত নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেই। কারখানার ভেতরে কলা গাছের একটি জঙ্গল রয়েছে এবং পেছন দিক থেকে বাইরের লোকজন কারখানার ভেতরে প্রবেশ করতে পারে। আর ওই জঙ্গল থেকেই শয়ন মন্ডলের মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। মৃতদেহের চারপাশে মাদকের নানা সরঞ্জাম পাওয়া গেছে। এতে ধারণা করা হয় বাইরের লোকেরা প্রবেশ করে সে স্থানটিতে এসে মাদকের আড্ডা বসাতেন। ময়নাতদন্ত রিপোর্ট পেলে যুবকের মৃত্যুর কারণ জানা যাবে।
তিনি আরও বলেন, মৃতের বাবা জতীন্দ্র মন্ডল মরদেহ শনাক্ত করে পুলিশকে জানিয়েছেন, তার ছেলে শয়ন মাদকাসক্ত ছিলেন। শয়নের স্ত্রী ও সন্তান আছে। নেশার টাকার জন্য বাড়িতে প্রায় সময় উৎপাত করতেন তিনি। ঘরের আসবাবপত্র ভাংচুর করতেন। তাকে নিয়ে পরিবারে অশান্তি ছিল।
এদিকে ঘটনার বিষয়ে কারখানার মালিকপক্ষের সঙ্গে যোগাযোগ করলে তারা কোনো মন্তব্য করতে রাজি হয়নি। তাদের নাম পরিচয় দিতেও অপারগতা প্রকাশ করেন এবং ঘটনাস্থলে সংবাদ কর্মীদের যেতে বাধা দেন।